মানুষের গায়ে ‘সোনার রক্ত’ ! আপনিও হতে পারেন তাদের মধ্যে একজন, জেনে নিন বিস্তারিত

স্বাস্থ্য

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন কিছু মানুষ রয়েছে যারা ইউনিভার্সেল ডোনার’ তাই এদেরকে গোল্ডেন ব্লাড অধিকারী বলা হয়। এরা সকল প্রকার গ্রুপের মানুষকে ব্লাড ডোনেট করতে পারে।

সারা বিশ্ব খুজে গত 57 বছরে মাত্র 43 জনকে পাওয়া গেছে যাদের রক্তের গ্রুপ এ রকম। একদিক থেকে বলতে গেলে এই গ্রুপটিকে বিরলতম ব্লাড গ্রুপ বলে যেতেই পারে। এই ব্লাড গ্রুপ যুক্ত মানুষরা যেকোনো ধরনের ব্লাড গ্রুপ যুক্ত মানুষকে ব্লাড ডোনেট করতে পারে তাই এই গ্রুপটির নামকরণ করা হয়েছে “গোল্ডেন ব্লাড”।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে রক্তের গ্রুপ নির্ধারণের জন্য সাধারণত রক্তে 342 এন্টিজেন থাকে যার কম্বিনেশন ই ব্লাড গ্রুপ নির্ধারণ করে। সর্বপ্রথম 1961 সালে এই ব্লাড গ্রুপের সন্ধান পাওয়া যায় যার মধ্যে আরএইচ সিস্টেমে 61 টি অ্যান্টিজেনের অস্তিত্ব ছিলনা। তাই এই প্রকার রক্তের গ্রুপের নাম দেওয়া হয় ‘আরএইচ-নাল’। সেসময় বিশ্বে মাত্র 43 জনের শরীরে এই রক্তের সন্ধান পাওয়া গেছিল। সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে আর মাত্র 9 জন মানুষ ই এই রক্তের অধিকারী।

বৈজ্ঞানিকদের মতে, গোল্ডেন ব্লাড এর অধিকারীরা ইউনিভার্সেল ডোনার’ অর্থাৎ তারা যে কোন ব্লাড গ্রুপের মানুষ কে রক্ত দিতে পারেন। কিন্তু যখন তাদের রক্তের দরকার করে তখনই খুব সমস্যা দেখা যায়। কারণ এই প্রকার রক্ত খুবই বিরল। তবে এই রক্তের অধিকারীদের জীবনে খুব একটা অসুবিধা হয় না সামান্য পরিমাণে রক্তাল্পতা থাকলেও সেটা খুব একটা মারাত্মক নয়।

তবে চিকিৎসকদের মতে, গোল্ডেন ব্লাড অধিকারীদের খুব সাবধানে জীবনযাপন করা উচিত কারণ যদি কখনো অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয় তাহলে তাদের বাঁচানো খুবই মুশকিল।

এরকম জানা অজানা আরও খবর পেতে আমাদের পরবর্তী আর্টিকেল গুলি পড়তে পারেন এবং এটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে সবার সাথে শেয়ার করে জানতে সাহায্য করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *