শিক্ষক দিবসে অ্যানিমেটেড অক্টোপাসের বিশেষ Google Doodle

Uncategorized

 

Happy Teachers’ Day 2019: শিক্ষক দিবসে অ্যানিমেটেড অক্টোপাসের বিশেষ Google Doodle

 

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণের জন্মবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা জানাতে ভারত প্রতি বছর শিক্ষক দিবস উদযাপন করে।

 

নয়া দিল্লি: আজ অর্থাৎ বৃহস্পতিবার দেশ জুড়ে পালন করা হচ্ছে শিক্ষক দিবস। প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণের জন্মবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা জানাতে ভারত প্রতি বছর শিক্ষক দিবস (Teachers’ Day) উদযাপন করে। তিনি (Sarvepalli Radhakrishnan) একাধারে যেমন ছিলেন একজন বিশিষ্ট শিক্ষক, তেমনি ছিলেন দার্শনিক এবং রাজনীতিবিদও। শিক্ষক দিবসের প্রতি সম্মান জানিয়ে গুগল একটি অ্যানিমেটেড ডুডল (Google Doodle) তৈরি করল, ডুডলটি হল একটি লাল অক্টোপাস, যাকে দেখা যাচ্ছে পরীক্ষা-নিরীক্ষা, জটিল সমীকরণের সমাধান, নোট গ্রহণ করতে এবং এই সব কাজের সঙ্গে হাতে বই নিয়ে পড়তেও দেখা যাচ্ছে তাঁকে। ডঃ রাধাকৃষ্ণণ একজন অসামান্য পণ্ডিত ছিলেন এবং অনুকরণীয় শিক্ষক ছিলেন। তিনি ছিলেন দেশের প্রথম উপরাষ্ট্রপতি এবং দ্বিতীয় রাষ্ট্রপতি।

 

৫সেপ্টেম্বর। ক্যালেন্ডারে লাল দাগ না থাকলেও আমাদের মনে দাগ কেটে গেছে শৈশব থেকেই। ‘শিক্ষক’ শব্দের মানে বোঝার ঢের আগে থেকেই রঙিন কাগজ, বেলুন আর রাশি রাশি চকোলেট দিয়ে দিনটার ছবি এঁকে রেখেছি মনের মণিকোঠায়। শিক্ষক দিবস। ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণের জন্মদিন। হ্যাঁ, দেশের প্রথম উপরাষ্ট্রপতি ও দ্বিতীয় রাষ্ট্রপতি ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ। শিক্ষাবিদ ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ। দক্ষ কূটনৈতিক, জ্ঞানী পণ্ডিত ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ। এই এত পরিচয়ের পরেও অসম্পূর্ণ থেকে যায় তাঁর পরিচয়। এই সব পরিচয় বাদ দিয়েও শেষ পর্যন্ত যে কারণে মনে রাখা যায় তাঁকে, তা হলো শিক্ষক ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ।

 

ডঃ রাধাকৃষ্ণণ তামিলনাড়ুতে ১৮৮৮ সালের ৫ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি চেন্নাইয়ের প্রেসিডেন্সি কলেজ এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়েও শিক্ষকতা করেন। ১৯৩১ থেকে ১৯৩৬ সাল পর্যন্ত তিনি অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলেন। ১৯৬২ সালে তিনি দেশের রাষ্ট্রপতি হন।

 

ড. সর্বপল্লি রাধাকৃষ্ণণের জন্মদিনে দেশজুড়ে পালিত হয় শিক্ষক দিবস

 

 

ডঃ রাধাকৃষ্ণণ বরাবরই মাটির মানুষ ছিলেন, সকলের সঙ্গেই সহজে মিশে যেতেন তিনি। যখন তিনি রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন, তখন নিজের শুভাকাঙ্ক্ষীদের উদ্দেশে তিনি বলেন যে তাঁর জন্মদিন উদযাপন করার পরিবর্তে তাঁরা যেন ৫ সেপ্টেম্বরকে শিক্ষক দিবস হিসাবে পালন করেন।

 

“আমার জন্মদিন উদযাপনের পরিবর্তে ৫ সেপ্টেম্বর দিনটিকে শিক্ষক দিবস হিসাবে পালন করলে আমার ভাল লাগবে” বলেন তিনি ।

 

 

সেই থেকে তাঁর জন্মদিন ভারতে শিক্ষক দিবস হিসাবে পালিত হয়। ডঃ রাধাকৃষ্ণণ রাষ্ট্রপতি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই শিক্ষক দিবস পালনের রীতিও শুরু হয় দেশ জুড়ে।

 

বিজেপিতে যোগ দিলেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণের নাতি সুব্রামনিয়াম শর্মা

 

ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ ১৯৫৪ সালে ভারতের সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মান ভারতরত্নে ভূষিত হন। নোবেল পুরষ্কারের জন্য তিনি ২৭ বার মনোনীত হন; এর মধ্যে সাহিত্যে তাঁর অবদানের স্বীকৃতি হিসাবে নোবেল পুরষ্কারের জন্য মনোনীত হন ১৬ বার এবং নোবেল শান্তি পুরষ্কারের জন্য ১১ বার।

 

রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ আজ অর্থাৎ বৃহস্পতিবার জাতীয় শিক্ষক পুরষ্কার প্রদান করবেন। দিল্লিতে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সারা দেশের ৪৬ জন গুণী শিক্ষককে সম্মান জানানো হবে।

 

 

 

পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ!

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *