ব্যর্থ হলো ‘চন্দ্রযান ২’ মিশন! স্বপ্নভঙ্গ ১৩০ কোটি ভারতবাসীর

টেকনোলজি দেশ দেশ-বিদেশ

স্বপ্নভঙ্গ ১৩০ কোটি ভারতবাসীর! ব্যর্থ হলো ‘চন্দ্রযান ২’ মিশন!

বিশেষ প্রতিবেদনঃ সবকিছু ছন্দেই চলছিল, কিন্তু হঠাৎ ঘটল ছন্দপতন। সকাল থেকেই সমগ্র দেশ জুড়ে মানুষের মধ্যে উত্তেজনা। কিন্তু শেষ মুহুর্তে এমন ভয়ঙ্কর সত্যের মুখোমুখি হতে হবে দেশবাসীকে তা অবশ্য আশা করেননি তিনি। বেশ কয়েকদিন থেকেই তাঁর চোখে ঘুম নেই। শুক্রবার সকাল থেকেই তাঁকে একাধিক সংবাদমাধ্যমে দেখা গিয়েছে। যথেষ্ট আশাবাদী ছিলেন তিনি তাই শেষ মুহূর্তেই এই ভয়ঙ্কর সত্যি মেনে নিতে পারছেননা ইসরোর চেয়ারম্যান কে সিবান।

 

অনেক আশা, অনেক প্রত্যাশা নিয়েই ভারত থেকে চাঁদের পথে রওনা দিয়েছিলো ‘চন্দ্রযান ২’। টানা ৪৮ দিনের পর চাঁদের মাটি স্পর্শ করতে চলেছিলো বিক্রম(চন্দ্রযান মিশনের প্রমুখ অংশ)। কিন্তু হঠাতেই সবকিছু উল্টেপাল্টে গেলো। চাঁদের মাটি থেকে ২.১ কিমি আগেই সিগন্যাল ব্রেক হয়ে যায় বিক্রমের। তারপর থেকে আর খুঁজে পাওয়া গেলো না বিক্রমকে। সেই স্বপ্ন অধরাই রয়ে গেলো। সেইসঙ্গে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে ১৩০ কোটি ভারতবাসীর।

ভারতের দ্বিতীয় চন্দ্রযান নিয়ে ‘রকেট ম্যান’ কে সিবানের তও্বাবধানেই একদল বিজ্ঞানী গবেষনা করেছেন দিনরাত। তাঁদের এই অক্লান্ত পরিশ্রমের ফ্ল হিসাবে তাঁদের সকলের মুখে হাসি দেখতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু মাত্র ২.১ কিলোমিটার দূরেই আশায় জল পড়ল ১৩০ কোটি মানুষের।

 

যখন মধ্যরাতে ভারতাবসী চন্দ্রযান ২ এর সফলতার দিকে তাকিয়ে তখন লাইভ টেলিকাস্টে কয়েক মিনিটের নিরবতা। অবশেষে ভাঙা গলায় সেই ভয়ঙ্কর খবরটা নিজেই দিলেন এই ‘রকেট ম্যান’। তিনি জানান, পূউর্ব পরিকল্পনা মতোই ল্যান্ডার বিক্রম চাঁদের দিকে নামতে শুরু করেছিল কিন্তু ২.১ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত তাঁর গতিবিধি পর্যবেক্ষন করা গেলেও তারপর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এরপরেই তথ্য খতিয়ে দেখার কথা জানান তিনি।

 

ইসট্র্যাক থেকে চন্দ্রযান ২-এর ওপর প্রতিনিয়ত নজর ও নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। কে শিবন সম্প্রতি জানিয়েছেন, অভিযানের সাফল্যের জন্য আমাদের তরফে ও ক্ষমতায় যা যা করা সম্ভব, সবকিছুই করা হয়েছে। এখন একটাই প্রার্থনা– যাতে ‘সফট ল্যান্ডিং’ সঠিকভাবে সম্পন্ন হয়।

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *