সাবধান ! পুজোর আগে আসতে চলেছে সাইক্লোন ঝড় হিক্কা

আবহাওয়ার খবর

আরব সাগরে ধেয়ে আসতে চলেছে ঘূর্ণিঝড় হিক্কা।আবহবিদরা জানান, আরব সাগরে ফুঁসছে ‘হিক্কা’। বুধবার প্রথমে ওমানের মাসিরাহের বুকে আছড়ে পড়বে এই ঘূর্ণি। তার জেরে ঝড় ও অতি ভারী বৃষ্টি চলবে। তারপরই শক্তি হারিয়ে ফের গুজরাটের দিকে ধেয়ে আসবে ‘হিক্কা’। ফলে গুজরাট উপকূলে সে অর্থে তাণ্ডব চালাতে পারবে না এই ঝড়।

 

 

আগামী ২৪ ঘণ্টায় ব্যাপক বৃষ্টিপাত হতে চলেছে তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, গুজরাট ইত্যাদি রাজ্যে। হাওয়া অফিস সূত্রের খবর, আরব সাগরে ধেয়ে আসতে চলেছে ঘূর্ণিঝড় হিক্কা। আর এই হিক্কার প্রকোপেই ব্যাপক বৃষ্টির আশঙ্কা করা হচ্ছে এই সব জায়গায়।

হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, গুজরাটের ভেরাভাল, পাকিস্তানের করাচির ৪৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং ওমানের মাসিরাহের ৭৬০ কিলোমিটার পূর্ব-দক্ষিণপূর্ব সীমান্তেই হতে চলেছে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত।

 

হিক্কার থাবা থেকে রেহাই নেই পশ্চিমবঙ্গেরও!

 

 

 

হাওয়া অফিস সূত্রে আশঙ্কা করা হচ্ছে যে, ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝড় ধেয়ে আসতে চলেছে গুজরাটের উপকূলবর্তী অঞ্চলে। ইতিমধ্যেই মৎস্যজীবীদের সতর্ক করা হয়েছে। আর এরই কারণে বঙ্গোপসাগরে ২৪ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ আগামীকাল থেকে একটি নিম্নচাপের আশঙ্কা করা হচ্ছে হাওয়া অফিসের তরফে। আবহাওয়া সূত্রে খবর, ওড়িশা, গঙ্গা সংলগ্ন পশ্চিমবঙ্গের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে।

 

 

 

 

আগামী বুধবার ওমানে এই হিক্কার প্রভাবে বড়সড় ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে হাওয়া অফিসের তরফে। আবহাওয়া সূত্রে খবর, ওমানে ১৭ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায় আছড়ে পড়তে পারে এই ঝড়। আবহাওয়া দফতরের তরফে জানানো হয়েছে যে, ‘২৫ সেপ্টেম্বর সকালের দিকেই ওমানের উপকূলবর্তী অঞ্চলে আছড়ে পড়তে পারে হিক্কা ঘূর্ণিঝড়। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টাতেও থাকবে এর প্রভাব।’

 

আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে মৎস্যজীবীদের গভীর সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রশাসনকে সজাগ থাকতেও নির্দেশ দেয় আবহাওয়া দফতর। সমুদ্র তীরবর্তী এলাকার মানুষজনকে অন্যত্র সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। সতর্কতামূলক ব্যবস্থায় কোনও খামতি রাখেনি প্রশাসন।