“২০৮০ সালে ধ্বংস হবে পৃথিবী এমনটাই জানালো নাসা”!! জানুন আসল ঘটনা

দেশ-বিদেশ
Image: Internet

পৃথিবী কবে নাগাদ ধ্বংস হবে তার ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন নাসার বিজ্ঞানীরা।এরকম মিথ্যে প্রচার চালাচ্ছেন কিছু সংবাদমাধ্যম।
সেই সংবাদমাধ্যমগুলির মতে, ২৮৮০ সালের ১৬ মার্চ ধ্বংস হবে পৃথিবী। এর কারণ এদিন ডিএ-১৯৫০ নামে এক গ্রহাণু সজোরে আঘাত হানবে পৃথিবীর বুকে।এটির আঘাত হানার সম্ভাবনা ৩০ শতাংশ।অর্থাৎ, এ যাবৎকালের যে কোনো গ্রহাণুর চেয়ে এটির আঘাতের ঝুঁকি ৫০ শতাংশ বেশি।

Image: Internet

গ্রহাণুটি ১৯৫০ সালের ২৩শে ফেব্রুয়ারি আবিষ্কৃত হয়। সে সময় ১৭ দিন দৃশ্যমান ছিল এটি। এই গ্রহাণুটি আবারো ধরা দিয়েছে বিজ্ঞান চোখে।বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, গ্রহাণুটি প্রতি সেকেন্ডে ১৫ কিলোমিটার (৯ মাইল) বেগে ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে।পৃথিবীতে আঘাত হানার পর এটি আছড়ে পড়বে আটলান্টিক মহাসাগরে।

Image: Internet

আছড়ে পড়ার সময় গ্রহাণুটির ওজন দাঁড়াবে ৪৮ হাজার মেগাটন TNT. ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের
অধ্যাপক ও বিজ্ঞানী সান্তাক্রুজ দেখিয়েছেন, গ্রহাণু আছড়ে পড়লে আটলান্টিকের জল ৪০০ ফুট উপরে উঠে আসবে। যার ফলে বড় ধরণের সুনামি দেখা দেবে।তবে গ্রহাণুটির আঘাত হানার সম্ভাবনা একদম নাকচ
করে দেওয়া যায় না।

Image: Internet

৬৫ মিলিয়ন বছর আগে এমন এক আঘাতের ফলে পৃথিবী থেকে ডাইনোসরের বিলুপ্তি ঘটে।নাসার বিজ্ঞানীরা গ্রহাণুটির আঘাত প্রতিরোধের উপায় খুঁজছেন।

আবার অনেকেই দাবি করেছেন এই খবর নাকি সত্য। এরকম পৃথিবী ধ্বংসের খবর বেশ কিছুদিন ধরেই বিভিন্ন মহলে শোনা যাছে।কিন্তু এর পিছনে আসল কোনো যুক্তি নেই।নাসাও এই ব্যাপারে কোনো অফিশিয়াল নোটিশ দেয়নি।সুতরাং গুজব থেকে দূরে থাকুন আর অবশ্যই আনন্দে থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *