হলিউডের সবচেয়ে ব্যয়বহুল ৫টি মুভি…৩ নম্বরটি দেখলে অবাক হবেন

Uncategorized বিনোদন

হলিউড মানেই নতুনত্ব,বক্স অফিসে তোলপাড়,সাথে বিপুল অর্থের রেকর্ড।হলিউডের সিনেমাগুলো যেমন মোটা টাকা আয় করে ঠিক তেমনি এই সিনেমাগুলো বানাতেও খরচ হয় বিপুল অর্থ।তবে হলিউডের অন্য মুভিগুলোর তুলনায় সুপারহিরো মুভিগুলো বানাতেই বেশী অর্থ লাগে।এর কারণ হলো সুপারহিরো মুভিগুলোতে প্রচুর পরিমাণে ভি এফ এক্স ব্যবহার হয়।চলুন তাহলে দেখে নেওয়া যাক হলিউডে সবচেয়ে ব্যয়বহুল মুভিগুলোর লিস্ট :-

৫. জন কার্টার:-

Source:- Dailymotion

২০১২ সালে মুক্তি পাওয়া এই সাইন্স-ফিকশন/ফ্যান্টাসি মুভিটির কাহিনী নেয়া হয়েছে এডগার রাইস বারোজ এর বিখ্যাত উপন্যাস ‘A Princess Of Mars’ থেকে মুক্তি পায় ‘জন কার্টার’ মুভিটি। মুভিটি তৈরি করতে খরচ হয় প্রায় ২৬৩.৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ২০৬০ কোটি টাকা।তবে এই মোটা টাকা ঢালার পরেও ছবিটি দর্শকদের মন কাড়তে অসফল হয় এই ছবিটি।এই ছবিটি বিশ্বজুড়ে মাত্র ২৮৪ মিলিয়ন অর্থাৎ ২২২৩ কোটি আয় করতেই সফল হয়।

৪. অ্যাভেঞ্জার্স এজ অফ আলট্রন:-

Source:- Alta Definizione – HDblog

তালিকার ৪র্থ স্থানে রয়েছে ২০১৫ সালে মুক্তি পাওয়া সুপারহিরো মুভি অ্যাভেঞ্জার্স: এজ অব আলট্রন। পরিচালক জস হুইডনের পরিচালনায় এই মুভিটিতে অভিনয় করেন ক্রিস হেমসওর্থ, রবার্ট ব্রাউনি ডী জুনিয়র, মার্ক রোফালো, স্কারলেট জোহানসেন সহ আরো অনেক তারকা অভিনেতা-অভিনেত্রীরা।এই ছবিটি তৈরী করতে খরচ হয়েছিলো মোট ২১৮৪ কোটি টাকা।এই মুভিটি বক্স অফিসে সুপারহিট ছিলো।এই ছবিটি বিশ্বজুড়ে মোট ১.৪০৫ বিলিয়ন ডলার আয় করে।

৩. জাস্টিস লিগ:-

Source:- Ciné Pop

ব্যাটম্যান ভার্সেস সুপারম্যান: ডন অব জাস্টিস যেখানে শেষ হয়েছিল, জাস্টিস লিগের শুরুটা সেখান থেকেই, মানে সুপারম্যানের মৃত্যুর সংবাদ দিয়ে। তবে মৃত্যু হলেও লুইস লেনের স্বপ্নের মধ্যে দেখা দেয় সুপারম্যান। আর অন্যদিকে স্বপ্নের মধ্যে পৃথিবীকে ধ্বংস হতে দেখেন ব্যাটম্যান। সুপারহিরোদের এই মুভিটির পেছনে খরচ পড়েছে প্রায় ৩০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (২৩৫০ কোটি টাকা) ও এর থেকে আয় হয়েছে প্রায় ৯৬৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

২. পাইরেটস অফ দ্য ক্যারিবিয়ান: অ্যাট ওয়ার্ল্ড এন্ড:-

Source:- Amino Apps

এটি ‘পাইরেটস অফ দ্যা ক্যারিবিয়ান’ সিরিজের ৩য় মুভি। পরিচালক গর ভারবিন্সকি এর পরিচালনায় মুভিটিতে অভিনয় করেন বিখ্যাত অভিনেতা জনি ডেপ এর ২০০৭ সালে মুক্তি পাওয়া এই মুভিটি ছিল একই সাথে ওই বছরের সবচেয়ে ব্যয়বহুল ও সবচেয়ে ব্যবসাসফল মুভি। মুভিটির পেছনে খরচ পড়েছে প্রায় ৩০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (২৩৫০ কোটি টাকা) এবং মুভিটি আয় করে প্রায় ৬৫৫.২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

১. পাইরেটস অফ দ্য ক্যারিবিয়ান: অন স্ট্রেঞ্জার টাইডস:-

Source:- Air Freshener

এই ছবিটি ‘ পাইরেটস অফ দ্য ক্যারিবিয়ান ‘ সিরিজের ৪র্থ ছবি।এই ছবিটি টিম পাওয়ারের স্ট্রেঞ্জার টাইডস থেকে নেওয়া হয়েছে।জনি ডেপের এই মাস্টার ক্লাস ছবিটি ২০১১ সালে মুক্তি পায়।এই ছবিটি তৈরীর পেছনে খরচ হয়েছে মোট ৩৭৮.৫ মিলিয়ন ডলার যা ভারতীয় মুদ্রায় ২,৯৬০ কোটি টাকা।এটি ইতিহাসের সবচেয়ে বেশী ব্যয়বহুল ছবি।এই ছিবিটি আয় হয় ১.০৪৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *