থানার সামনের ব্যাংকেই ডাকাতি – একরাতে লুট 50 লাখ টাকা

দেশ দেশ-বিদেশ
Source:- Anandabazar Patrika

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মারিশদা থানা এলাকায় থানার সামনের ব্যাংক থেকে ডাকাতি হলো 50 লাখ টাকা। থানা থেকে ঢিলছোড়া দূরত্বে অবস্থিত ব্যাংকের লকার ভেঙে লুঠ হয়েছে 50 লাখ টাকা। থানা থেকে মাত্র 200 মিটার দূরে অবস্থিত এই ব্যাংকটি। প্রায় গোটা ব্যাংকই লুট করে নিয়ে গেছে চোরের দল পরের দিন সকালে এসে টের পেলেন ব্যাংকের কর্মীরা।

এদিন সকালে সাড়ে নটা নাগাদ দুই কর্মী ব্যাংক খুলতে এসে দেখেন ব্যাংকে ঢোকার মূল কলাপসিবল গেটের তালা ভাঙ্গা। তালা গুলি পড়ে রয়েছে মাটিতে। এই ঘটনা দেখার সাথে সাথেই ওই দুই কর্মী খবর দেন ব্যাংকের ম্যানেজার কে। ম্যানেজার ফোন করে জানান থানায়।

ব্যাংক কর্মীদের সাথে নিয়ে ব্যাংকের ভেতরে ঢুকে একেবারে তাজ্জব হয়ে যান পুলিশের আধিকারিকরা। গটা ব্যাংকি তছনছ করে রাখা আছে। ব্যাংক এর ভেতরের এবং বাইরের সমস্ত সিসিটিভি ভাঙ্গা অবস্থায় পড়ে রয়েছে মাটিতে। সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে যে কম্পিউটারে রাখা হয় সেটিও ভেঙে তছনছ করে গেছে দুষ্কৃতীরা। এই ডাকাতির ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্তারা। জেলা পুলিশ সুপার জানিয়েছেন আনুমানিক 50 লাখ টাকা লুট করে পালিয়েছে দুষ্কৃতীরা।

প্রাথমিক তদন্তের পর জানা গেছে, গ্যাস কাটার এর মত কোন যন্ত্র দিয়ে লোহার ভল্ট গুলিকে কেটে টাকা বের করা হয়েছে। গোটা ব্যাংক লুট করতে দুষ্কৃতীদের সময় লেগেছে আনুমানিক 2 থেকে 3 ঘন্টা। থানা থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে অবস্থিত এই ব্যাংকের নিরাপত্তা এবং পুলিশের ভূমিকা নিয়ে আগুন তুলছে এলাকার বাসিন্দারা। ব্যাংকের কোন নিজস্ব নিরাপত্তারক্ষী না থাকলেও এলাকায় রাতভর টহল দেয় পুলিশ এবং সিভিক ভলেন্টিয়ার রা। তারপরেও এতক্ষণ ধরে কি করে অপারেশন চালায় দুষ্কৃতীরা সেই নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

জেলা পুলিশ সুপার কে এই ঘটনা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান রাত একটার সময় পুলিশ এসে এই এলাকায় টহল দিয়ে গেছে, তখনো সবকিছু ঠিকঠাকই ছিল। এর পরেই এমন ঘটনা ঘটেছে বলে অনুমান করা যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *